ব্লগ পরিচিতি: ৬ষ্ট অংশ – ব্লগ করতে কি কি লাগে ! Essentials of Blogging

ব্লগ পরিচিতি: ৬ষ্ট অংশ – ব্লগ করতে কি কি লাগে ! Essentials of Blogging

- in Blogging
66
Comments Off on ব্লগ পরিচিতি: ৬ষ্ট অংশ – ব্লগ করতে কি কি লাগে ! Essentials of Blogging

Essentials of Blogging : ব্লগ শুরু করতে যা যা দরকার :

এই প্রশ্নটি যদি আপনার মনেও এসে থাকে তবে, আপনিাকে ধন্যবাদ কেননা, আপনি অনেকটাই এগিয়ে গেছেন ব্লগিংয়ের পরিচয় পর্বে।যাইহোক, বাস্তবিকই একজন ব্লগারের শুরু করার জন্য কি কি প্রয়োজন হতে পারে ছোট্ট এক নজর দেখে নিবো।

  1. স্বদিচ্ছা : সদিচ্ছা যদিও টাকা দিয়ে কিনতে হয়না, তবু যে কোন কাজ এই সদিচ্ছার অভাবেই পন্ড হয় অথবা শেষ হয়েও হয়না শেষ।তাই, স্বদিচ্ছাটা সবচেয়ে আগে ও ভিষনভাবে দরকারী।
  2. সময় : সময়ের মূল্য অনেক আমরা সবাই জানি, কিন্তু মূল্যবান আসলে চলে গেলেই আমাদের বুঝে আসে, তার আগ পর্যন্ত এই সময়টাকেও কিন্তু ফিতেই কাজে লাগানো যায়।যে কোন কাজে সফলতা আনার জন্য দ্বিতীয় জরুরী বিষয়টা হচ্ছে ঐ কাজের জন্য নির্দিষ্ট পরিমান একটা সময় বের করা। সময় যদি না দেওয়া হয় অথবা এলোমেলো সময় দেওয়া হয়, তবে দুভাবেই কাজে ব্যাঘাত ঘটার সম্ভাবনা আছে, আর এমন সম্ভাবনা নিয়ে সফলতার মূখ দেখা স্বপ্নের মতো।
    ব্লগ করার পেছনে সময় আপনাকে দিতেই হবে বিশেষ করে প্রথম দিকে। পরবর্তিতে আস্তে আস্তে সময়ের পরিমানটা কমিয়ে আনা যাবে। এখানে যে একেবারে ৫ ঘন্টা-৮ ঘন্টা ডিউটি করতে হবে এমন কোন ধরা বাধাঁ নিয়ম নেই। আপনি পারলেন তো আধাঘন্টা সময় ব্যয় করলেন, বেশী পারলেন তো আরও সময় দিলেন।একদিনে না পারলে দুই দিন পর পর সময় দিলেন। তাও পারলেন না তো সাপ্তাহে দিলেন। আর যদি তাও না পারেন, তবে অনর্থক ডোমেইন হোষ্টিং নিয়ে টাকা নষ্ট করার কোন মানেই হয় না।
  3. বিষয়: অভিজ্ঞতার সাথে মিল রেখে ও চলমান পরিস্থিতির উপড় জনপ্রিয় কোন একটি বিষয় নির্বাচন করা।
  4. ন্টারনেট: ব্লগ করাটা যেহেতু অনলাইনে ডায়েরী লেখা তাই ব্লগ করার জন্য আপনাকে অবশ্বই অনলাইনে থাকতে হবে, আর তার জন্য ইন্টারনেট কানেকসান নিতেই হবে।
  5. একাউন্ট: উপড়ের তিনটি বিষয় নির্ধারন হবার পর ব্লগ করার জন্য একিট ফ্রি একাউন্ট অথবা নিজস্ব একাউন্ট তৈরী করা।এখাত্রে দুইটা উপায়েই শুরু করা যেতে পারে, কোনো ফ্রি ব্লগ প্লাটফর্মে ব্লগ খুলে অথবা নিজের জন্য টাকা দিয়ে কোন ব্লগ বানিয়ে।
  6. ইমেইল: ফ্রি তেই ব্লগ খুলুন আর পেইড ব্লগ, দু’ভাবেই কাজ করার জন্যে আপনার একটি ইমেইল ও পাসওয়ার্ড প্রয়োজন হবে। এক্ষেত্রে জিমেইল (Gmail Account) হলে সবচেয়ে ভাল হয়।আর যদি Google Blogspot এ ফ্রি বা পেইড ব্লগ করতে চান তাহলেতো জিমেইল একাউন্ট ছাড়া কোন গল্পই চলবে না।
  7. ডোমেইন: ডোমেইন হচ্ছে একটা ব্লগের এড্রেস, নাম বা পরিচিতি।ভিজিটরেরা প্রত্যেকবার যেই নামটি ব্রাউজারে লিখে তার কাংখিত সাইট বা ব্লগে প্রবেশ করে।সুতরাং ভিজিটরদের জন্য আপনার কাংখিত বিষয়ের সাথে মিল রেখে নাম ঠিক করাটা জরুরী। ডোমেইন এর ক্ষেত্রে শুরুতে ডোমেইন বা সাব ডোমেইন যে কোন একটি নিয়েও কাজ শুরু করা যেতে পারে । আপনার জন্য কোনটি বেশী প্রয়োজনীয় জানার জন্য “ডোমেইন না সাব-ডোমেইন” এই লেখাটি দেখতে পারেন।
  8. এসিও দক্ষতা: এসিও হচ্ছে ব্লগ বা ওয়েবসাইটের সাথে সার্চ ইঞ্জিনের সম্পর্ক । যে যতো ভাল এসিও জ্ঞান (SEO Knowledge) রা্খবে, সার্চ ইঞ্জিনের সাথে সেই ব্লগ বা সাইটের সম্পর্ক ততো গভীর হবে। আর সার্চ ইঞ্জিনের সাথে সম্পর্ক  যত গভীর হবে ভিজিটররাও সেও সাইটে হুমরী খেয়ে পড়বে। আর যতটা ভিজিটর বাড়বে ঠিক ততটাই ইনকাম বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়া ব্লগ করার জন্য HTML,Javascript, Php কোডিং জ্ঞান সহ অন্যান্ন যে সকল জরুরী বিষয় আছে, সেগুলো ধীরে ধীরে জেন নিলেও চলবে।উপড়ে বর্নিত বিষয়গুলি দিয়েই একজন নতুন ব্লগার প্রথম পর্যায়ে ব্লগ লেখা শুরু করতে পারেন।

Facebook Comments

You may also like

Best Pro Blogger Templates To Make Your Blog Awesome !

ব্লগারের জন্য সর্বসেরা ৫টি থিমস: Best Pro Blogger