নিয়ে নিন ফ্রি মাস্টারকার্ডের সাথে ফ্রি ২৫ ডলার বোনাস !!

নিয়ে নিন ফ্রি মাস্টারকার্ডের সাথে ফ্রি ২৫ ডলার বোনাস !!

- in Earn Money
151
Comments Off on নিয়ে নিন ফ্রি মাস্টারকার্ডের সাথে ফ্রি ২৫ ডলার বোনাস !!

আপনার নামে নিয়ে নিন একটি ফ্রি ইন্টারন্যাশনাল প্রি-পেইড মাস্টারকার্ড সাথে ২৫ ডলারের আকর্শনীয় বোনাস !

তরবারী ছাড়া যুদ্ধের ময়দানে যেমন অসহায় লাগতে পারে, পে-পাল একাউন্ট বা মাস্টার কার্ড  ছাড়া একজন অনলাইন মার্কেটার বা ফ্রিল্যান্সার ঠিক তেমনটাই অসহায় বোধ করে। তাই আউটসোর্সিংয়র সকল ধাপে একটা নিজস্ব মাস্টার কার্ডের প্রয়োজনীয়তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। কিন্তু প্রথমটিই (Paypal) যেহেতু আমাদের দেশে নেই, সেক্ষেত্রে একটা মাস্টার কার্ডই আমাদের ভরসা। আর আমাদের এই প্রয়োজন মেটাতে সর্ব প্রথম যেই নামটি আসে, সেটি পেয়োনিয়ার মাস্টার কার্ড।

পেয়োনিয়ার মাস্টার কার্ড কি ও কেন ?
পেওনার হচ্ছে অনলাইন পেমেন্ট এন্ড ফাইনানসিয়াল সার্ভিস। পেওনার উপযুক্ত আবেদনের প্রেক্ষিতে ২১০ টিরও বেশী দেশে বিনামূল্যে প্রিপেইড মাস্টার কার্ড দিয়ে থাকে।এবং একজন পেয়োনিয়ার মাস্টার কার্ড ব্যবহারকারী অনলাইনে বা অফলাইনে মাস্টার কার্ড লোগো সম্বলিত যে কোন প্রতিাষ্ঠানের সাথে আর্থিক লেন-দেন করতে পারে।যার জন্য তাকে Cross Border Charge এর মতো কোন প্রকার বাড়তি ফি প্রদান করতে হয় না।একজন পেয়োনিয়ার মাস্টার কার্ড ব্যবহারকারী ফ্রি তে কার্ড পাবার পাশাপাশি কাওকে রেফার করে বা নিজে কারও রেফার হয়ে বাড়তি আয় করতে পারেন ২৫ ডলার। যা সরাসরি তার কার্ডে গিয়ে জমা হবে এবং তা যেকোন কেনা কাটায় খরচ করা যাবে।

তবে ২৫ ডলার ফ্রি পেতে হলে অবশ্যয় কারও রেফারেল থেকে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে এবং কার্ডে নূন্যতম ১০০ ডলার লোড করতে হবে। ১০০ ডলার লোড করার পর উভয়ের কার্ডেই ২৫ ডলার করে  অটোমেটিক লোড হয়ে যাবে।

পেয়োনিয়ার মাস্টার কার্ড এর আবেদন করার জন্য : অবশ্বই আপনার বয়স ১৮ বছর বা তার বেশী হতে হবে।আবেদনের সাথে প্রমান সরুপ জাতীয় পরিচয় পত্র বা ড্রাইভিং লাইসেন্স অথবা পাসপোর্ট এর স্কান কপি সাবমিট করতে হবে।

পেয়োনিয়ার মাস্টার কার্ড এর আবেদন করবেন যেভাবে :-

কার্ডটি পাওয়ার তিনটি ধাপ রয়েছে। প্রথম রেজিষ্টেশন দ্বিতীয়ত ঠিকানা নিশ্চিত করন এবং তৃতীয়ত কার্ড গ্রহন।
প্রথম ধাপ :
আবেদন করার জন্য এই লিংকে গিয়ে সাইনআপ বাটনে ক্লিক করুন।
এবারে Payoneer Sign Up Getting Started এ ক্লিক করে স্টেপ-২ ও স্টেপ-৩ এর তথ্যগুলো যথাযথ প্রদান করে নিচের চেকবক্স গুলোতে টিক মার্ক দিয়ে Finish বাটনে ক্লিক করুন।
দ্বিতীয় ধাপ:
এর পরে আপনার মেইলে একটি মেইল আসবে তাতে আপনার আইডি কার্ড আপলোড করার লিংক দেওয়া থাকবে। উক্ত Upload link এ ক্লিক করে তথ্যের সাথে মিল রেখে আইডি কার্ডটি আপলোড করতে হবে।
তৃতীয় ধাপ:
রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শেষ হবার পরে ১-২ সপ্তাহের মধ্যে আবেদনে প্রদত্ত মেইলের মাধ্যমে কার্ডের অনুমোদন সম্পর্কে জানিয়ে দেওয়া হবে। যদি আবেদনটি পেওয়োনিয়ার কতৃক গ্রহন যোগ্য হয় তবে ১ থেকে ২ মাসের মধ্যেই আপনার কার্ডটি হাতে পৌছে যাবার কথা।

Mastercard Bangladesh

 

পেয়োনিয়ার মাস্টার কার্ড টি ভাল ভাবে হাতে পাবার জন্য : কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরী। এই যেমন:-

  • আমাদের দেশের সরকারী চাকুরীজিবীদের অবস্থা তো আমরা জানিই। তারা খুবই ভাল মানুষ, একদম সময় নষ্ট করেন না।তাই হয়ত পিয়ন আপনার কার্ড হাতে পাবার পরেও এক কোনায় ডিম পারার জন্য রেখে দিতে পারে। তাই পূর্ব হতেই মাস্টার মশাইকে চা পান খাইয়ে হাত করে রাখুন। তাহলে খামের উপড় আপনার নামটা লেখা দেখলে চিনতে পারবেন।
  • যতটা সম্ভব যেই ঠিকানায় আপনার কার্ড আসার সম্ভাবনা আছে, কার্ড শিপিংয়ের জন্য সেই ঠিকানাটাই দিন।
  • রোড নাম্বার, ব্লক নাম্বার বা বাড়ি নাম্বার যুক্ত ঠিকানা প্রদান করুন।
  • আর যদি কোন ঝামেলা না চান, এবং আপনার কার্ডের একাউন্টে ৫০ ডলার থাকে তবে আপনি সরাসরি কুরিয়ারে করেও আপনার কার্ড নিয়ে আসতে পারেন।

হাতে পাবার পর কার্ড যেভাবে চালু করবেন:
একাউন্ট করার সময়কার ইমেইল ও পাসওয়ার্ড দিয়ে পেওনার অ্যাকাউন্ট লগইন করে Click here to active your card লিংকে ক্লিক করে আপনার কার্ড নম্বরদিয়ে আপনার পছন্দ মত চার সংখ্যার পিন নম্বর দিয়ে অতপর Active বাটনে ক্লিক করতে হবে। আপনার ইমেইল ইনবক্সে  নিশ্চিতকরণ মেইল যাবে। এবারে আপনি আপনার কার্ডের ব্যালেন্স দেখতে ও লেনদেন করতে পারবেন।

Facebook Comments

You may also like

Adults Link Shorten Sites For Make Money Online

এডাল্টস লিংক শর্টেন এর সেরা সাইট : Top