ব্লগ থেকে টাকা আয় – How To Earn Money From Blogging

ব্লগ থেকে টাকা আয় – How To Earn Money From Blogging

- in Blogging
57
3

ব্লগ পরিচিতি: ৭ম অংশ – ব্লগ থেকে টাকা আয় করা :
(How To Earn Money From Blogging)

এই প্রসঙ্গের শুরুতেই যেই কথাটা বলা জরুরী, শুধু টাকা আয়ের চিন্তা মাথায় নিয়ে ব্লগ করলে সেই ব্লগের মান ভাল নাওবা হতে পারে।প্রথমেই গুনগত মানের দিকে নজর দিতে হবে।এরপর যখন সুযোগ সৃষ্টি হবে অথবা মনে হবে যে এখন সময় হয়েছে ব্লগ থেকে কিছ আয় করার, তখুন কেবল আয়ের উপায় নিয়ে কাজ করা যেতে পারে। মূল কথা হচ্ছে, টাকা আগে না, ব্লগের মান আগে। একটা ব্লগের যদি বিষয়, ডিজাইন ও এসিও ভাল থাকে তবে, সেই ব্লগ থেকে টাকা আসতে বেশী সময় নেয় না।
যাইহোক এবারে আমি ব্লগ থেকে সবচেয়ে সহজ পদ্ধতীতে টাকা আয়ের পথ সম্বন্ধে আলোচনা করছি।

ব্লগ থেকে টাকা আয় করার সেরা ১০ টি পদ্ধতী ঃ

Advertising : নিজের ব্লগে অন্যের এ্যাডস প্রদর্শন করা। ব্লগ থেকে আয় করার জন্য এটিই অন্যতম সহজ পথ। একটা টিভি চ্যানেল যেমন দর্শকগনকে ফ্রিতে এ্যাডস দেখিয়ে নিজেরা ইনকাম করে, এটাও ঠিক তেমনি।একজন ব্লগার ভাল কন্টেন্ট দিয়ে তার ব্লগ সাজায়, আর সেই কন্টেন্ট বা বিষয়বস্তুর খোঁজে যখন ভিজিটরের আগমন হবে, তারা এ্যাডসগুলো দেখতে পাবে।আর সেখান থেকেই টাকা আয় শুরু হবে। এক্ষেত্রে ব্লগে যদি ভিজিটরের সংখা ১০০০ অথবা পেজ ভিউজের সংখ্যা ৫০০০ হাজার ছাড়িয়ে যায় তবে, ব্লগের জন্য ভাল কোন এড কোম্পানীর কাছে এডের জন্য আবেদন করা যেতে পারে।

Product Selling: কোন কোম্পানী বা প্রোডাক্টের আলোচনা ও বৈশিষ্ট নিয়ে ব্লগে লেখা লেখি ও শেয়ার থেকে আয় করা। এক্ষেত্রে কোম্পানীর সাথে সরাসরি চুক্তি করে অথবা নিজেই প্রোডাক্ট সেল করে হিসাবে টাকা আয় করা যায়।

Affiliate Marketing: এফিলিয়েট মার্কেটিং অনলাইন আয়ের অন্যতম একটি সেরা মাধ্যম। মোটা টাকা আয়েরও অন্যতম মাধ্যম। এফিলিয়েট মার্কেটিং বিভিন্ন পদ্ধতীতে পরিচালিত হয়ে থাকে। কিন্তু লক্ষ সবারই সমান, প্রোডাক্ট বিক্রি করা। এক্ষেত্রে যেই কাজটি করতে হয়, বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটিং সিস্টেম অনূসরন করে কোন কোম্পানীর হয়ে তার প্রোডাক্টের প্রচার ইন্টারনেটের মাধ্যমে দূর দূরান্তের গ্রাহকের কাছে পৌছে দেওয়া।এরপর যদি কেও আগ্রহী হয়ে সেই প্রোডাক্ট বা পন্যটি কিনে নেয়।এফিলিয়েট মার্কেটার তার থেকে একটা কমিশন পায়।

Selling Backlinks: চুক্তিতে অন্যের ব্লগ বা ওয়েব সাইটের উপড় কন্টেন্ট তৈরী করে নিজের ব্লগে পাবলিশ করা।অথবা অন্যকে নিজের ব্লগে ব্যাকলিঙ্ক যুক্ত ভাল মানের পোষ্ট পাবলিশ করার অনুমূতি দেওয়া।বিষয়টিকে ইংরেজীতে ও অনলাইনে Guest Blogging নামেও অভিহিত করা হয়। এক্ষেত্রে কাজের অর্ডার পাবার জন্য ব্লগে “Post Your Link Here” “Create Link from this Blog” এ যাতীয় ব্যানার প্রদর্শন করতে হয়।এছাড়াও বিভিন্ন ফোরাম বা সোস্যাল সাইটে গিয়ে বিষয়টিকে অন্যান্য ব্লগ বা ওয়েব সাইট মালিকদের দৃষ্টি আকর্শন মূলক পোষ্ট করতে হয়।

Sending Visitors: ভিজিটর পাঠানো। এই ব্যাপারটি আরো সোজা। ব্লগ থেকে ক্যাটেগরী বা ব্যানারের মাধ্যমে সরাসরি কোন সাইট বা প্রোডাক্টের পেজে ভিজিটর পাঠিয়েও টাকা আয় করা যায়। এক্ষেত্রেও অর্ডার পাবার জন্য উপড়ের নিয়মটি অনূসরন করতে হবে। অথবা ভাল কোন কোম্পানীর আশ্রয় নিতে হবে।অনলাইনের ভাষায় যাকে PTP হিসাবে বলা হয়ে থাকে। এই PTP সম্বন্ধে পরবর্তিতে বিস্তারীত লিখবো ইন শা আল্লাহ।

Upload-Download: আপলোড আর ডাউনলোড। ভালকোন ফাইল শেয়ার সাইটে দর্শক চাহিদা সম্পন্ন কোন ফাইল আপলোড দেওয়া,এবং তা ব্লগে ভিজিটরদের সাথে শেয়ার করা।এরপর ভিজিটরেরা যখন সেই ফাইলকে ডাউনলোড করবে, ব্লগে মালিকের তা থেকে ইনকাম হবে। এটি অনলাইনের একটি মজার ব্যপারের মত। তবে এর থেকে টাকা খেতে হলে আপনার ব্লগটি মোটামুটি পপুলার হতে হবে এবং ব্লগটি বিনোদন জাতীয় (গান, মুভি, নাটক, ইত্যাদী) হতে হবে। এ বিষয়েও পরবর্তিতে ভাল কোম্পানীর ঠিকানা সহ বিস্তারিত আলোচনা করবো। ইন শা আল্লাহ।

Link Shorten: কোন দরকারী লিংক বা দর্শক চাহিদা সম্পন্ন কোন লিংক কে সরাসরি ব্লগে বা ওয়েবসাইটে শেয়ার না করে, তাকে কোন ভাল লিঙ্ক শরটেন সাইটের থেকে ছোট করে নিয়ে এসে ভিজিটরদের কাছে শেয়ার করা।এরপর একজন ভিজিটর সেই লিংকে ক্লিক করলে তার থেকেও একটা নির্দিষ্ট পরিমান টাকা একাউন্টে জমা হয়। এক্ষেত্রে উপড়ের মতো বিনোদন যাতীয় লিঙ্ক হলে ক্লিক পড়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে। আর অবশ্বই ভাল কোম্পনী বেছে নিতে হবে যাতে, টাকা পাওয়া যায়। ভাল সাইট নিয়ে শীঘ্রই ফিরে আসবো।

Link Pasting: অনেকটাই Link Shorten এর মতো তবে পার্থক্যটা হচ্ছে, এখানে মূল লিঙ্কটি ব্লগে না দিয়ে Link Pasting Sites এর কাছে জমা রাখা।ভিজিটর যদি সেই লিঙ্ক পেতে চাই তাহলে ব্লগের প্রদত্ত লিঙ্ক দিয়ে সেখানে যেতে হবে। আর এই কাজটি করার বিনিময়েই একাউন্টে টাকা জমা হবে।

Referring: দাওয়াত দেওয়া বা Invite করা। ব্লগে ব্যানার প্রদর্শন বা সরাসরি ইমেইলের মাধ্যমে কোন কোম্পানী বা সাইটে কাওকে যোগ দেবার আমন্ত্রন জানানো। অতপর, যদি সেই আমন্ত্রিত লোকটি উক্ত রেফার লিঙ্ক ধরে যোগদান করে তবে তার যোগদানের উপড় ভিত্তিকরে অথবা যোগদানের পর তার কাজের উপড় ভিত্তিকরে উক্ত আমন্ত্রন কারীকে কোম্পানী তার নিজের পকেট থেকে টাকা প্রদান করে থাকে। এক্ষেতে যোগদান কারীর কোন ক্ষতি নেই, কিন্তু ইনভাইটকারীর কিছু লাভ হলেও হবে।
কিছু লস হবে এই ভেবে অনেকেই রেফার লিংক ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকে যা মোটেই ঠিক না। কেননা যেখানে জয়েনকারীর কোন ক্ষতি হচ্ছেনা , তাই বিষয়টি অনেকটা স্বার্থপরতার মত হয়ে যায়। যে কারও উচিৎ অন্তত কৃতজ্ঞগতার কথা ভেবেও রেফার লিংক দিয়ে একাউন্ট করা, নিজের না হোক ইনভাইটকারীর কিছুতো হলো।
রেফার থেকে আয়ের পরিমানটা পার্সেন্টসের উপড় নির্ভর হয়ে থাকে যেমন, ১০-২০%।
এছাড়াও কিছু কোম্পানী আছে, যারা রেফার ছাড়া জয়েনই দেয় না।
যাইহোক, এভাবে একজন ব্লগ মালিক ভিজিটরদের বা বন্ধুবান্ধবদের সরাসরি রেফার করেও আয়ের পরিমানটা বাড়িয়ে তুলতে পারে।

Email Marketing: ইমেইল মার্কেটিং যদিও এফিলিয়েট মার্কেটিং এর অন্যতম একটি অংশ, তবুও ব্লগ থেকে আয় করার জন্যও অন্যতম আরো একটি উপায়। তবে ব্যাপারটি অনেকটাই সোজা: ব্লগে ভাল কন্টেন্ট এর মধ্য দিয়ে ভালমানের সাবস্ক্রাইবার দের ইমেইল সংগ্রহ করে তাদের আগ্রহের উপড় ভিত্তিকরে তাদের কাছে বিভিন্ন অফার মূলক ইমেইল পাঠানো। অথবা রেফার মূলক ইমেইল পাঠানো।আর যদি তারা সেই অফারটি গ্রহন করে, তারপর কি ঘটবে সে টা আশা করি আর বলতে হবে না।

উপড়ের ১০ পদ্ধতি প্রায় শ’খানেক পদ্ধতীর মধ্যে হতে বাছাইকরে সবার কাছে আমার মত করে প্রকাশ করলাম। ভূল ত্রুটি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।কোন বিষয় ক্লিয়ার না হলে কমেন্ট করে জানাবেন।এছাড়াও যদি কারও কাছে নতুন কোন সহজ মেথোড থাকে ব্লগ থেকে দ্রুত আয় করার জন্য, কমেন্ট করে সবাইকে জানাবেন।
ধন্যবাদ।।

Facebook Comments

3 Comments

  1. Top methods you are pointed to make money on blog, very nice.
    Thanks for the great share.

  2. All those are best method to make some easy money in a short time.You are shared an small but great list.Thank you..

  3. Kisu notun system shiklam, dhonnobad vai..aro lekhar opekkhai thaklam.

Comments are closed.

You may also like

Best Pro Blogger Templates To Make Your Blog Awesome !

ব্লগারের জন্য সর্বসেরা ৫টি থিমস: Best Pro Blogger